RSS

হৃদয় হরণ পিঠা

উপকরণ : ময়দা ১ কাপ, তরল দুধ দেড় কাপ, পোলাওর চালের গুঁড়া ২ টেবিল চামচ, লবণ সামান্য ও চিনি বা গুড়ের সিরা দেড় কাপ।
প্রণালি : দুধ ফুটে উঠলে সামান্য লবণ, চালের গুঁড়া ও ময়দা দিয়ে নেড়ে নামিয়ে নিন। ভালোভাবে মথে পাতলা রুটি বানান। কুচি করে ভাঁজ করুন। এবার ভাঁজের মাঝের অংশ ভেতরে ঢুকিয়ে অপর দুই পাশ ঘুরিয়ে আটকে দিন। ডুবো তেলে ভাজুন, সিরায় দিয়ে তুলে নিন।

হৃদয় হরণ পিঠারেসিপিটি প্রকাশিত হয়  ডিসেম্বর ০৬, ২০১৬
PALO

Advertisements
 

দুধ খেজুরের রসে ঝিনুক পিঠা

উপকরণ : আতপ চালের গুঁড়া দেড় কাপ, পোলাওর চালের গুঁড়া ২ টেবিল চামচ, দুধ ১ লিটার, গুড় ১ কাপ (স্বাদমতো), লবণ সামান্য, কোরানো নারকেল ১ কাপ, ঘি ১ টেবিল চামচ ও পানি ২ কাপ। এ ছাড়া নতুন চিরুনি লাগবে ২টি।
প্রণালি : সামান্য লবণ দিয়ে পানি ফুটান। পানি ফুটে উঠলে চালের গুঁড়া দিয়ে নেড়ে সেদ্ধ হলে নামিয়ে নিন। ভালোভাবে মেখে ছোট ছোট বলের মতো করে নিন। দুটি চিরুনিতে ঘি মেখে ঝিনুকের আকারে পিঠা তৈরি করুন। পিঠা ভেজে রাখুন। অন্য পাত্রে দুধ জ্বাল দিয়ে কোরানো নারকেল, পিঠা ও গুড় দিয়ে কয়েক মিনিট রেখে চুলা থেকে নামিয়ে নিন। ঠান্ডা হলে পরিবেশন করুন।

দুধ খেজুরের রসে ঝিনুক পিঠারেসিপিটি প্রকাশিত হয়  ডিসেম্বর ০৬, ২০১৬
PALO

 

লবঙ্গ লতিকা

উপকরণ : ময়দা দেড় কাপ, তেল ১ টেবিল চামচ, লবঙ্গ ১০-১২টা, সুজি ১ কাপ, ঘি ২ টেবিল চামচ, চিনি বা গুড় আধা কাপ (স্বাদমতো), কোরানো নারকেল আধা কাপ, লবণ সামান্য ও দারুচিনি ১ টুকরা।
প্রণালি : ময়দায় সামান্য লবণ ও তেল মেখে ডো তৈরি করুন। সুজি অল্প টেলে ধুয়ে নিন। ঘিতে দারুচিনি ভেজে তুলে নিন। সুজি, চিনি বা গুড়, কোরানো নারকেল দিয়ে ভেজে নামিয়ে নিন। ছোট ছোট রুটি বানিয়ে এর ভেতর সুজির পুর ঢুকিয়ে ভাঁজ করে লবঙ্গ দিয়ে আটকে দিন। ডুবো তেলে ভেজে নিন। গরম অথবা ঠান্ডা পরিবেশন করুন।

লবঙ্গ লতিকারেসিপিটি প্রকাশিত হয়  ডিসেম্বর ০৬, ২০১৬
PALO

 

পাপড়ি চাট

উপকরণ : পাপড়ির জন্য : ১ কাপ ময়দা, ঘি আড়াই চামচ, কালোজিরা ১ চা চামচ, লবণ স্বাদমতো, পানি প্রয়োজনমতো, স্পেশাল টকের জন্য ৩-৪টি খেজুর কুচি, পানি দেড় কাপ, তেঁতুল গোলা ১ কাপ, গুঁড় ১ টেবিল চামচ, জিরা গুঁড়া আধা চা চামচ, লবণ স্বাদমতো, আদা কুচি আধা চা চামচ।

প্রস্তুত প্রণালি : পাপড়ির চাটের জন্য : ১৫-২০টি পাপড়ি, ২ কাপ স্পেশাল টক, ২টি সেদ্ধ আলু ছোট কিউব করে কাটা, ২টি পেঁয়াজ কুচি, আধা কাপ ডাবলি সিদ্ধ, ফেটানো টক দই, জিরা, মরিচ গুঁড়া প্রয়োজনমতো, ধনেপাতা কুচি ইচ্ছামতো। পাপড়ি তৈরি : ময়দাতে কালোজিরা, ঘি, লবণ দিয়ে ভালো করে মেখে নিন। এবার প্রয়োজন মতো পানি দিয়ে ডো তৈরি করুন। পাতলা বড় রুটি বেলে ছোট ছোট গোল করে কেটে নিন। ২০-২৫টি পাপড়ি হবে। কাঁটা চামচ দিয়ে ফুটো করে নিন, যাতে পাপড়ি ফুলে না যায়।

টক তৈরি : চুলায় দেড় কাপ পরিমাণ পানি ১ কাপ তেঁতুল গোলা দিয়ে জ্বাল দিতে থাকুন। এরপর খেজুর দিয়ে মিশ্রণটি নরম হওয়া পর্যন্ত জ্বাল দিন। তারপর একে একে সব উপকরণ দিয়ে ঘন মিশ্রণ তৈরি করুন। নামিয়ে ঠাণ্ডা করুন।

পাপড়ি চাট তৈরি : একটি বড় বাটিতে ফেটানো দই, পাপড়ি ও ১ কাপ টক বাদে সব উপকরণ ভালো করে মিশিয়ে নিন। একটি করে পাপড়ির ওপরে ১ চামচ করে আলু, ডাবলির মিশ্রণ রেখে ফেটানো দই দিন এবং মিহি পেঁয়াজ কুচি ও ধনেপাতা কুচি, কাঁচামরিচ কুচি ছিটিয়ে দিন। চানাচুর ও টক দিয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করুন।

পাপড়ি চাটরেসিপিটি প্রকাশিত হয় ০৯ নভেম্বর ২০১৬
1SAMAKAL=LOGO

 
এখানে আপনার মন্তব্য রেখে যান

Posted by চালু করুন ডিসেম্বর 6, 2016 in নাস্তা

 

নারিকেল দুধে ইলিশ মাছের কোরমা

উপকরণ : ইলিশ মাছ ৬ টুকরা, পেঁয়াজ বাটা ১-৩ কাপ, আদাবাটা ১ টেবিল চামচ, রসুন বাটা ১ টেবিল চামচ, চিনি ১ চা চামচ, কাঁচা মরিচ ৪-৫টি, লবণ স্বাদমতো, তেল আধা কাপ, লেবুর রস ১ চা চামচ, নারিকেলের দুধ আধা কাপ, টেস্টিং সল্ট কোয়ার্টার চা চামচ, জায়ফল ও জয়ত্রী গুঁড়া কোয়ার্টার চা চামচ, টক দই আধা কাপ, জিরা গুঁড়া আধা চা চামচ, এলাচ, দারচিনি তিনটি করে, কেওড়া জল কোয়ার্টার চা চামচ।

প্রস্তুত প্রণালি : মাছের টুকরাগুলো ভালো করে ধুয়ে নিন। কড়াইয়ে তেল গরম করে এলাচ, দারুচিনি ভেজে পেঁয়াজ বাটা হালকা ভেজে নিন। এর পর আদা-রসুন বাটা ও জিরা গুঁড়া ও লবণ দিয়ে মসলা ভালো করে ভেজে নিন। এবার দই, কাঁচামরিচ, স্বাদমতো লবণ ও চিনি দিয়ে কিছুক্ষণ কষিয়ে নিন। ইলিশ মাছ দিয়ে নেড়ে নারিকেলের দুধ ও জায়ফল-জয়ত্রী গুঁড়ো এবং কেওড়া জল দিয়ে মৃদু আঁচে ঢেকে দিন। ১০ মিনিট রান্না করে মাছ মাখা মাখা হয়ে এলে লেবুর রস দিয়ে নামিয়ে পরিবেশন করুন।

নারিকেল দুধে ইলিশ মাছের কোরমা রেসিপিটি প্রকাশিত হয় ১২ অক্টোবর ২০১৬
1SAMAKAL=LOGO

 

স্টাফড চিচিঙ্গা

উপকরণ : কচি চিচিঙ্গা ১টা, মুরগির কিমা ২৫০ গ্রাম, বড় পেঁয়াজ ১টা কুচি করে কাটা, আদাবাটা আধা চা-চামচ, রসুনবাটা সিকি চা-চামচ, মরিচ গুঁড়ো আধা চা-চামচ, মোজারেলা চিজ কুচি ৪ চা-চামচ, টমেটো সস ২ চা-চামচ, লবণ স্বাদমতো ও তেল প্রয়োজনমতো।

প্রণালি : চিচিঙ্গার খোসা আঁচড়ে নিয়ে আড়াই ইঞ্চি আকারের গোল রিং করে কেটে ভেতরের বীজের অংশ বের করে পরিষ্কার করে নিতে হবে। তারপর ফুটন্ত লবণ-পানিতে ৮ থেকে ১০ মিনিট ফুটিয়ে নামিয়ে কিচেন টিস্যু দিয়ে মুছে নিন। বাইরে অল্প করে মাখন মেখে ঠান্ডা করে নিতে হবে। অন্য একটা প্যানে ১ টেবিল চামচ তেলে পেঁয়াজ কুচি হালকা ভেজে আদা-রসুনবাটা ও মরিচ গুঁড়ো দিয়ে কষিয়ে মুরগির কিমা দিন। কিমার গায়ের পানি শুকিয়ে গেলে স্বাদমতো লবণ আর অল্প পানি দিয়ে ঢেকে রান্না করতে হবে। কিমা সেদ্ধ হয়ে পানি শুকিয়ে গেলে টমেটো সস মিশিয়ে নামিয়ে ঠান্ডা করুন। এরপর চিচিঙ্গার রিঙের মধ্যে চেপে চেপে রান্না করা কিমা ভরে ওপরে মোজারেলা চিজ কুচি দিয়ে ১০ থেকে ১৫ মিনিট রেখে দিতে হবে। তারপর বেকিং ট্রেতে অল্প তেল মাখিয়ে নিয়ে চিচিঙ্গার রিংগুলো সাজিয়ে ওপরে চিজ ছড়িয়ে দিয়ে ১৮০ ডিগ্রি প্রিহিট করা ওভেনে ১২ থেকে ১৫ মিনিট বেক করে নিন। ওভেন না থাকলে চুলায় করা যাবে। সে ক্ষেত্রে প্যানে অল্প তেল দিয়ে কিমা ভরা রিংগুলো বসিয়ে ঢাকনা দিয়ে ঢেকে দিতে হবে। এক পাশ সোনালি হয়ে গেলে চিচিঙ্গা রিঙের ওপরে আর নিচে পাতলা খুন্তি দিয়ে ধরে খুব সাবধানে উল্টিয়ে নিন। এবার তার ওপরে মোজারেলা চিজ কুচি দিয়ে চিজ গলে গেলে নামিয়ে নিতে হবে। সেই সঙ্গে খেয়াল রাখতে হবে চিচিঙ্গাও যেন সেদ্ধ হয়। তবে একদম নরম করা যাবে না।

স্টাফড চিচিঙ্গা

রেসিপিটি প্রকাশিত হয়  ২২ মার্চ, ২০১৬
PALO

 

 
2 টি মন্তব্য

Posted by চালু করুন মার্চ 25, 2016 in চিচিঙ্গা, শাকসবজি, Uncategorized

 

রসুন-চিংড়ি

উপকরণ : মাঝারি চিংড়ি ৫০০ গ্রাম, লেবুর রস ২ টেবিল চামচ, পাপরিকা সিকি চা-চামচ, লবণ স্বাদমতো, মাখন ২ টেবিল চামচ, তেল ২ টেবিল চামচ, রসুন কুচি ২ টেবিল চামচ, লাল মরিচ থেঁতলানো ২টা, চিনি ১ চা-চামচ।

প্রণালি : চিংড়ি ধুয়ে কিচেন টাওয়েল দিয়ে মুছে শুকিয়ে নিন। তাতে ১ টেবিল চামচ লেবুর রস, পাপরিকা ও ১ চিমটি লবণ মেখে পরিবেশন পাত্রে রাখুন। চুলায় প্যানে মাখন দিয়ে রসুন কুচি ও থেঁতলানো লাল মরিচ দিয়ে একটু ভেজে নিন। এবার বাকি সব উপকরণ দিয়ে একটু নেড়েচেড়ে খুব অল্প পানি দিন। ঘন সস হয়ে এলে মাছের ওপর ঢেলে দিন। এবার ২০০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপে ১৫-২০ মিনিট প্রিহিটেড ওভেনে বেক করুন। নামিয়ে গরম গরম পরিবেশন করুন ফ্রায়েড রাইস বা পোলাওর সঙ্গে।

রসুন-চিংড়িরেসিপিটি প্রকাশিত হয় ২৪ নভেম্বর ২০১৫
PALO

 
এখানে আপনার মন্তব্য রেখে যান

Posted by চালু করুন নভেম্বর 24, 2015 in চিংড়ি

 
 
%d bloggers like this: