RSS

Category Archives: শাকসবজি

স্টাফড চিচিঙ্গা

উপকরণ : কচি চিচিঙ্গা ১টা, মুরগির কিমা ২৫০ গ্রাম, বড় পেঁয়াজ ১টা কুচি করে কাটা, আদাবাটা আধা চা-চামচ, রসুনবাটা সিকি চা-চামচ, মরিচ গুঁড়ো আধা চা-চামচ, মোজারেলা চিজ কুচি ৪ চা-চামচ, টমেটো সস ২ চা-চামচ, লবণ স্বাদমতো ও তেল প্রয়োজনমতো।

প্রণালি : চিচিঙ্গার খোসা আঁচড়ে নিয়ে আড়াই ইঞ্চি আকারের গোল রিং করে কেটে ভেতরের বীজের অংশ বের করে পরিষ্কার করে নিতে হবে। তারপর ফুটন্ত লবণ-পানিতে ৮ থেকে ১০ মিনিট ফুটিয়ে নামিয়ে কিচেন টিস্যু দিয়ে মুছে নিন। বাইরে অল্প করে মাখন মেখে ঠান্ডা করে নিতে হবে। অন্য একটা প্যানে ১ টেবিল চামচ তেলে পেঁয়াজ কুচি হালকা ভেজে আদা-রসুনবাটা ও মরিচ গুঁড়ো দিয়ে কষিয়ে মুরগির কিমা দিন। কিমার গায়ের পানি শুকিয়ে গেলে স্বাদমতো লবণ আর অল্প পানি দিয়ে ঢেকে রান্না করতে হবে। কিমা সেদ্ধ হয়ে পানি শুকিয়ে গেলে টমেটো সস মিশিয়ে নামিয়ে ঠান্ডা করুন। এরপর চিচিঙ্গার রিঙের মধ্যে চেপে চেপে রান্না করা কিমা ভরে ওপরে মোজারেলা চিজ কুচি দিয়ে ১০ থেকে ১৫ মিনিট রেখে দিতে হবে। তারপর বেকিং ট্রেতে অল্প তেল মাখিয়ে নিয়ে চিচিঙ্গার রিংগুলো সাজিয়ে ওপরে চিজ ছড়িয়ে দিয়ে ১৮০ ডিগ্রি প্রিহিট করা ওভেনে ১২ থেকে ১৫ মিনিট বেক করে নিন। ওভেন না থাকলে চুলায় করা যাবে। সে ক্ষেত্রে প্যানে অল্প তেল দিয়ে কিমা ভরা রিংগুলো বসিয়ে ঢাকনা দিয়ে ঢেকে দিতে হবে। এক পাশ সোনালি হয়ে গেলে চিচিঙ্গা রিঙের ওপরে আর নিচে পাতলা খুন্তি দিয়ে ধরে খুব সাবধানে উল্টিয়ে নিন। এবার তার ওপরে মোজারেলা চিজ কুচি দিয়ে চিজ গলে গেলে নামিয়ে নিতে হবে। সেই সঙ্গে খেয়াল রাখতে হবে চিচিঙ্গাও যেন সেদ্ধ হয়। তবে একদম নরম করা যাবে না।

স্টাফড চিচিঙ্গা

রেসিপিটি প্রকাশিত হয়  ২২ মার্চ, ২০১৬
PALO

 

Advertisements
 
2 টি মন্তব্য

Posted by চালু করুন মার্চ 25, 2016 in চিচিঙ্গা, শাকসবজি, Uncategorized

 

নবরত্ন তরকারি

উপকরণ : বরবটি ২৫০ গ্রাম, আলু ও গাজর ২৫০ গ্রাম, ফুলকপি ২টি, ক্যাপসিকাম বড় ১টি, টমেটো ২টি, পেঁয়াজবাটা ১ কাপ, কাজু বাদামবাটা ২ টেবিল চামচ, এলাচি ৫-৬টি, দারুচিনি ৩টি, তেজপাতা ২টি, ধনেপাতা পরিমাণ মতো, পেঁয়াজ বেরেস্তা আধা কাপ, পেঁয়াজ ৪ টুকরা করে নিতে হবে আধা কাপ, মাখন ৫০ গ্রাম, রসুন কুচি ১ চা-চামচ, সাদা তেল ৩ টেবিল চামচ, হলুদ-মরিচের গুঁড়া আধা চা-চামচ, আস্ত কাঁচা মরিচ ৩-৪টি, লবণ ও চিনি স্বাদ অনুসারে, আদা ও রসুন বাটা ২ টেবিল চামচ এবং ফ্রেশ ক্রিম ১ কৌটা।

প্রণালি : সবজিগুলো চৌকা করে কেটে আধা সেদ্ধ করে ঠান্ডা পানিতে রাখতে হবে কিছুক্ষণ। তেলের মধ্যে এলাচি ও দারুচিনি ফোড়ন দিতে হবে। ফোড়ন থেকে সুগন্ধ বেরোলে পেঁয়াজবাটা কষাতে হবে। তারপর একে একে আদা, রসুন, হলুদ এবং মরিচের গুঁড়া দিয়ে আরও কিছুক্ষণ কষাতে হবে। কাজু বাদামবাটা দিয়ে বেশ কিছুক্ষণ মৃদু আঁচে নাড়তে হবে। অনবরত নাড়তে হবে যেন লেগে না যায়। তেল ছাড়লে নামিয়ে ফেলতে হবে। কড়াইতে মাখন দিয়ে রসুন কুচি ফোড়ন দিতে হবে। রসুন বাদামি রং হলে সেদ্ধ করে রাখা সবজিগুলো দিয়ে ভালো করে নাড়তে হবে। এরপর প্রস্তুতকৃত মসলা সেদ্ধ সবজিতে দিতে হবে। টুকরা করে কাটা টমেটো, ক্যাপসিকাম ও পেঁয়াজ দিতে হবে এবং নাড়াচাড়া করতে হবে। সবজি দেখে লবণ দিয়ে তারপর কাঁচা মরিচ ও চিনি দিতে হবে। ফ্রেশ ক্রিম দিয়ে ধনেপাতা কুচি আর পেঁয়াজ বেরেস্তা দিয়ে নামিয়ে ফেলতে হবে।

নবরত্ন তরকারিরেসিপিটি প্রকাশিত হয় ১৩ অক্টোবর ২০১৫
PALO

 
 

নারকেল দুধে পটোলের দম

উপকরণ : পটোল আদা কেজি (ছিলে সেদ্ধ করে নেওয়া), পেঁয়াজবাটা ১ টেবিল চামচ, আদাবাটা ১ চা–চামচ, ছোট এলাচি ৩/৪ টি, ঘি ও সরষের তেল একসঙ্গে ৪ টেবিল চামচ, নারকেলের দুধ দেড় কাপ, হলুদ আধা চা–চামচ, শুকনো মরিচের গুঁড়া আদা চা–চামচ, চিনি সিকি চা–চামচ, কাঁচা মরিচ ৭/৮টি ও লবণ স্বাদমতো।

প্রণালি : কড়াইতে তেল ও ঘি একসঙ্গে দিতে হবে। এলাচি থেঁতো করে ফোড়ন দিতে হবে। পেঁয়াজবাটা দিয়ে নাড়াচাড়া করতে হবে। পেঁয়াজ বাদামি রং হলে হলুদ ও শুকনো মরিচের গুঁড়া দিয়ে কষাতে হবে। তেল ছাড়লে পটোলগুলো দিয়ে আরও কিছুক্ষণ কষাতে হবে। তারপরে নারকেলের দুধ দিয়ে মৃদু আঁচে ঢেকে রাখতে হবে। পটোল সেদ্ধ হয়ে মাখা মাখা হলে কাঁচা মরিচ দিতে হবে। সবশেষে ঘি এবং চিনি দিয়ে নামিয়ে ফেলতে হবে।

নারকেল দুধে পটোলের দমরেসিপিটি প্রকাশিত হয় ১৩ অক্টোবর ২০১৫
PALO

 

লাবড়া

উপকরণ : ফুল কপি ১টি, মিষ্টি কুমড়া ১ ফালি, বরবটি ১ কাপ, বেগুন আধা কেজি, কাঁচা পেঁপে আধা কেজি, চিনা বাদাম ভাজা ১ টেবিল চামচ, পাঁচফোড়ন ১ চা চামচ, তেজপাতা ২টি, গুঁড়া দুধ ৩ টেবিল চামচ, কাঁচা মরিচ ৭-৮টি, লবণ পরিমাণমতো, আদা ছেঁচা ১ চা চামচ, হলুদ গুঁড়া ১ চা চামচ, ধনিয়া পাতা আধা কাপ, তেল আধা কাপ, চিনি ১ চা চামচ, শুকনা মরিচ ২টি।

প্রস্তুত প্রণালি : প্রথমে সব সবজিকে টুকরা করে কাটতে হবে। এরপর চুলায় কড়াই বসিয়ে তাতে তেল দিন, এরপর পাঁচফোড়ন দিয়ে তাতে দুটি শুকনা মরিচ ও তেজপাতা দিন এবং এগুলো ভাজা হয়ে গেলে তাতে চিনা বাদাম দিন। বাদাম লাল হয়ে এলে এতে ছেঁচা দিয়ে এক এক করে সব সবজি দিয়ে নাড়ূন। এরপর হলুদ ও মরিচ গুঁড়া, জিরা বাটা দিয়ে কশিয়ে সামান্য পানি দিয়ে ঢেকে রান্না করুন। সবজি সিদ্ধ হয়ে গেলে এতে গুঁড়া দুধ, চিনি, কাঁচামরিচ ও ধনিয়া পাতা দিয়ে নেড়ে নামিয়ে পরিবেশন করুন স্পেশাল লাবড়া।

লাবড়ারেসিপিটি প্রকাশিত হয় ১৪ অক্টোবর ২০১৫
1SAMAKAL=LOGO

 
 

চিজি বেগুন ভাজা

উপকরণ : বেগুন ১টি, হলুদ গুঁড়া আধা চা চামচ, মরিচ গুঁড়া আধা চা চামচ, লবণ পরিমাণমতো, আদা বাটা আধা চা চামচ, জিরা বাটা আধা চা চামচ, চিজ (গ্রেট করা) ২ চা চামচ, তেল আধা কাপ।

প্রস্তুত প্রণালি : প্রথমে বেগুনগুলোকে ভালো করে চাক চাক করে কেটে নিতে হবে। তারপর তাতে চিজ ছাড়া সব উপকরণ দিয়ে ভালোভাবে মাখিয়ে তেলে ভেজতে হবে। ভাজা হয়ে গেলে বেগুনগুলো সাজিয়ে ওপর থেকে চিজ ছড়িয়ে ওভেনে বেক করতে দিন ১৮০ সেন্টিগ্রেট ১০ থেকে ১২ মিনিট, তাহলেই তৈরি হয়ে যাবে চিজি বেগুন ভাজা।

চিজি বেগুন ভাজারেসিপিটি প্রকাশিত হয় ১৪ অক্টোবর ২০১৫
1SAMAKAL=LOGO

 

ঢ্যাঁড়সের দোলমা

উপকরণ : ঢ্যাঁড়স ২৫০ গ্রাম, চিংড়ি ১ কাপ, পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ, হলুদগুঁড়া ১ চা-চামচ, মরিচগুঁড়া ১ চা-চামচ, টমেটো ১টা, টকদই ১ টেবিল চামচ, পেঁয়াজ বাটা ১ চা-চামচ, কাঁচা মরিচ কুচি ১ টেবিল চামচ, জিরাগুঁড়া ১ চা-চামচ, ধনেগুঁড়া ১ চা-চামচ, ধনেপাতা কুচি সামান্য।

প্রণালি : ঢ্যাঁড়স ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নিন, মাঝে চিরে ভেতরের বিচি বের করে নিন। অল্প তেলে পেঁয়াজ ২ টেবিল চামচ, চিংড়ি (ছোট ছোট টুকরা করে কাটা), আধা চা-চামচ হলুদ ও মরিচগুঁড়া, ধনে ও জিরাগুঁড়া আধা চামচ, কাঁচা মরিচ কুচি ও সামান্য লবণ দিয়ে ভেজে নিন। ঢ্যাঁড়সের ভেতর চিংড়ির পুর ঢুকিয়ে দিন যাতে ঢ্যাঁড়স ভেঙে বা ফেটে না যায়। এবার অন্য পাত্রে ১ টেবিল চামচ তেলে বাকি সব উপকরণ ভেজে তাতে পুর ভরা ঢ্যাঁড়স ঢেলে ঢেকে দিন। চুলায় একটু রেখে ধনেপাতা দিয়ে নামিয়ে নিন।
ঢ্যাঁড়সের দোলমা

রেসিপিটি প্রকাশিত হয় ১১ আগস্ট ২০১৫
PALO

 
2 টি মন্তব্য

Posted by চালু করুন অগাষ্ট 17, 2015 in ঢ্যাঁড়স, শাকসবজি

 

মিষ্টি কুমড়ার পাপড়ি

উপকরণ : মিষ্টি কুমড়া স্লাইস করে কাটা এক কাপ, বেসন ২ টেবিল চামচ, ময়দা ১/২ কাপ, কর্নফ্লাওয়ার ১ টেবিল চামচ, তিল পরিমাণমতো, হলুদের গুঁড়া ১ চা চামচ, মরিচের গুঁড়া ১ চা চামচ, লবণ স্বাদমতো, তেল পরিমাণমতো।

প্রস্তুত প্রণালি : মিষ্টি কুমড়া ও তেল বাদে বাকি সব উপকরণ একসঙ্গে মিশিয়ে পরিমাণমতো পানি দিয়ে গোলা তৈরি করে নিতে হবে। মিষ্টি কুমড়ায় লবণ মেখে গোলায় ডুবিয়ে তিল ছিটিয়ে ডুবো তেলে ভেজে পরিবেশন করতে হবে।

মিষ্টি কুমড়ার পাপড়িরেসিপিটি প্রকাশিত হয় ২৪ জুন ২০১৫
1SAMAKAL=LOGO

 
 
%d bloggers like this: