RSS

Category Archives: পূজার নিমন্ত্রণে

রসমালাই

উপকরণ : ১ কাপ গুঁড়া দুধ, ৩টি ডিম, এক-চতুর্থাংশ কাপ বেকিং পাউডার, ১ কেজি দুধ, আধা কাপ চিনি, কাজু বাদাম ও পেস্তাবাদাম প্রয়োজনমতো।

প্রস্তুত প্রণালি : একটি বাটিতে গুঁড়া দুধ, ডিম ও বেকিং পাউডার মেশান এবং মিশ্রণটি ভালোভাবে দলাই-মলাই করুন এবং ৩০ মিনিট এটিকে আলাদা রাখুন। এরপর মিশ্রণগুলো থেকে ছোট মার্বেলের মতো বল তৈরি করুন হাতের তালুতে। এবার একটি পাত্রে দুধ ফুটান এবং সবুজ এলাচ ও চিনি দিয়ে নাড়তে থাকুন। চিনি সম্পূর্ণ মিশে গেলে মার্বেলের মতো বলগুলো ছেড়ে দিন এবং অল্প আঁচে ৫-৭ মিনিট রাখুন, তারপর কাজু বাদাম ও পেস্তা বাদাম কুচি ছড়িয়ে দিয়ে পরিবেশন করুন রসমালাই।

রসমালাইরেসিপিটি প্রকাশিত হয় ১৪ অক্টোবর ২০১৫
1SAMAKAL=LOGO

Advertisements
 

সন্দেশ

উপকরণ :(ছানার জন্য) সম্পূর্ণ ক্রিম দুধ দেড় লিটার, (রসের জন্য) সম্পূর্ণ ক্রিম দুধ ২ লিটার, চিনি (রস তৈরি করার সময় যোগ করা হবে) ১ কাপ, মিহি ময়দা আধা কাপ, চিনি (আমরা দলিত মালকড়ি রান্না করা, শেষে যোগ করা হবে) ৫ টেবিল চামচ

প্রস্তুত প্রণালি : ছানা তৈরি করুন এবং ছানা ৪ ঘণ্টার জন্য দম দিয়ে রাখুন, ছানা সম্পূর্ণ শুষ্ক হওয়া পর্যন্ত। এবার ময়দা ও রস মিশিয়ে ব্যাচ করুন এবং হাত দিয়ে চটকান ২০ মিনিট পর্যন্ত। তারপর ননস্টিকি প্যানে মিশ্রণটি রাখুন এবং গ্যাসের চুলায় অল্প আঁচে জ্বালান। মিশ্রণটি ক্রমাগত নাড়তে থাকুন ১৫ মিনিট। এভাবে একসময় মিশ্রণটি একদম শুকিয়ে যাবে। এরপর গ্যাসের চুলা বন্ধ করুন। এবার মিশ্রণটি ঠাণ্ডা করতে দিন। পুরোপুরি ঠাণ্ডা যেন না হয় সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। হালকা গরম থাকবে। এবার হাত অথবা ছাঁচে ফেলে গোল অথবা চারকোনা করে নিয়ে চেপে বিভিন্ন শেপে আনুন। সন্দেশ এখন ভঙ্গুর থাকবে; কিন্তু পুরোপুরি ঠাণ্ডা হতে হবে। এটি ঠাণ্ডা হলে ১৫ দিন পর্যন্ত ফ্রিজে সংরক্ষণ করা যায়।

সন্দেশরেসিপিটি প্রকাশিত হয় ১৪ অক্টোবর ২০১৫
1SAMAKAL=LOGO

 

গোলাপ জাম

উপকরণ : গুঁড়া দুধ ৫ টেবিল চামচ, ময়দা ২ টেবিল চামচ, বেকিং সোডা ১/৮ চা চামচ, ডিম ১টি, ডুবো তেলে ভাজার জন্য ২ কাপ তেল।
সিরাপের জন্য : চিনি ১ কাপ, পানি ১ কাপ, এলাচ গুঁড়া ১/৮ চা চামচ পরিমাণ মতো।

প্রস্তুত প্রণালি : একটি সস প্যানে সিরাপ বানানোর জন্য সব উপকরণ দিয়ে রাখুন এবং চুলার আঁচ মাঝারি রাখুন। এরপর চিনি ঘন হয়ে আসা পর্যন্ত নাড়তে থাকুন। তারপর চুলা বন্ধ করুন। এবার একটি বাটিতে গুঁড়া দুধ, ময়দা, বেকিং সোডা মেশান। তারপর একটি ডিম মেশান এবং ভালোভাবে মিক্সড করুন। মাখানো মিশ্রণ থেকে ১০টি একই রকম বল তৈরি করুন। বলগুলো দেখে এখন ছোট মনে হলেও বিশ্বাস করুন, সিরাপে ডোবানোর পর বলগুলো আরও বড় আকারের দেখতে হবে। বলগুলো পাকাতে থাকুন যতক্ষণ না বলগুলো মসৃণ হয় এবং নিশ্চিত করতে হবে যেন কোথাও কোনো ভাঙাচোরা না থাকে। এরপর একটি গভীর পাত্রে দুই কাপ তেল দিয়ে চুলার আঁচ বাড়িয়ে দিন অল্প করে। তৈরিকৃত বলগুলো কিছুক্ষণ পর আস্তে আস্তে ডুবো তেলে ছাড়ূন। বলগুলো চারদিকে হালকা বাদামি রঙ ধারণ করলে বলগুলো ঘুরিয়ে দিন যেন সব জায়গায় একই রকম রঙ হয়। এরপর জামগুলো সুবর্ণ বাদামি হলে সেগুলোকে চামচ দিয়ে নামিয়ে নিন। এবার আগে তৈরি করা সিরাপটি চুলার ওপর হালকা আঁচে বসান এবং তার ভেতর গোলাপ জামগুলো ছেড়ে দিন। আস্তে আস্তে আপনার তৈরি জামগুলো দেখতে সুন্দর ও নরম হবে। তারপর একটি সার্ভিং ডিশে নামিয়ে দিন জামগুলো এবং জামগুলোর ওপর সিরাপ ছড়িয়ে দিন। সুন্দর করে পরিবেশন করুন সুস্বাদু গোলাপ জাম।

GOLAP JAMরেসিপিটি প্রকাশিত হয় ১৪ অক্টোবর ২০১৫
1SAMAKAL=LOGO

 

লাবড়া

উপকরণ : ফুল কপি ১টি, মিষ্টি কুমড়া ১ ফালি, বরবটি ১ কাপ, বেগুন আধা কেজি, কাঁচা পেঁপে আধা কেজি, চিনা বাদাম ভাজা ১ টেবিল চামচ, পাঁচফোড়ন ১ চা চামচ, তেজপাতা ২টি, গুঁড়া দুধ ৩ টেবিল চামচ, কাঁচা মরিচ ৭-৮টি, লবণ পরিমাণমতো, আদা ছেঁচা ১ চা চামচ, হলুদ গুঁড়া ১ চা চামচ, ধনিয়া পাতা আধা কাপ, তেল আধা কাপ, চিনি ১ চা চামচ, শুকনা মরিচ ২টি।

প্রস্তুত প্রণালি : প্রথমে সব সবজিকে টুকরা করে কাটতে হবে। এরপর চুলায় কড়াই বসিয়ে তাতে তেল দিন, এরপর পাঁচফোড়ন দিয়ে তাতে দুটি শুকনা মরিচ ও তেজপাতা দিন এবং এগুলো ভাজা হয়ে গেলে তাতে চিনা বাদাম দিন। বাদাম লাল হয়ে এলে এতে ছেঁচা দিয়ে এক এক করে সব সবজি দিয়ে নাড়ূন। এরপর হলুদ ও মরিচ গুঁড়া, জিরা বাটা দিয়ে কশিয়ে সামান্য পানি দিয়ে ঢেকে রান্না করুন। সবজি সিদ্ধ হয়ে গেলে এতে গুঁড়া দুধ, চিনি, কাঁচামরিচ ও ধনিয়া পাতা দিয়ে নেড়ে নামিয়ে পরিবেশন করুন স্পেশাল লাবড়া।

লাবড়ারেসিপিটি প্রকাশিত হয় ১৪ অক্টোবর ২০১৫
1SAMAKAL=LOGO

 

চিজি বেগুন ভাজা

উপকরণ : বেগুন ১টি, হলুদ গুঁড়া আধা চা চামচ, মরিচ গুঁড়া আধা চা চামচ, লবণ পরিমাণমতো, আদা বাটা আধা চা চামচ, জিরা বাটা আধা চা চামচ, চিজ (গ্রেট করা) ২ চা চামচ, তেল আধা কাপ।

প্রস্তুত প্রণালি : প্রথমে বেগুনগুলোকে ভালো করে চাক চাক করে কেটে নিতে হবে। তারপর তাতে চিজ ছাড়া সব উপকরণ দিয়ে ভালোভাবে মাখিয়ে তেলে ভেজতে হবে। ভাজা হয়ে গেলে বেগুনগুলো সাজিয়ে ওপর থেকে চিজ ছড়িয়ে ওভেনে বেক করতে দিন ১৮০ সেন্টিগ্রেট ১০ থেকে ১২ মিনিট, তাহলেই তৈরি হয়ে যাবে চিজি বেগুন ভাজা।

চিজি বেগুন ভাজারেসিপিটি প্রকাশিত হয় ১৪ অক্টোবর ২০১৫
1SAMAKAL=LOGO

 

স্পেশাল লুচি

উপকরণ : ময়দা ২ কাপ, টক দই আধা কাপ, বেকিং পাউডার আধা চা চামচ, গুঁড়া দুধ ১ টেবিল চামচ, সুজি ২ টেবিল চামচ, ঘি আধা কাপ, তেল ১ কাপ, লবণ পরিমাণমতো, কালোজিরা ১ চা চামচ, আস্ত জিরা আধা চা চামচ, চিনি ১ চা চামচ, হালকা গরম পানি পরিমাণমতো।

প্রস্তুত প্রণালি : প্রথমে ময়দা, টক দই, বেকিং পাউডার, গুঁড়া দুধ, সুজি, লবণ, কালোজিরা ও আস্ত জিরা, চিনি দিয়ে ভালো করে মাখিয়ে এরপর গরম পানি দিয়ে ময়দা ভালো করে মাখাতে হবে, যাতে ডো নরম হয়। এরপর এটিকে ১৫-২০ মিনিট ঢেকে রাখতে হবে। ২০ মিনিট পর ময়দার লেচি কেটে গোল করে বেলে নিতে হবে। এখন অন্য একটি কড়াইতে তেল গরম হয়ে এলে লুচিগুলো ডুবো তেলে ভাজলেই তৈরি হয়ে যাবে। যে কোনো সবজি বা মিষ্টি দিয়ে পরিবেশন করুন এই স্পেশাল লুচি।

স্পেশাল লুচিরেসিপিটি প্রকাশিত হয় ১৪ অক্টোবর ২০১৫
1SAMAKAL=LOGO

 

পনির মসলা ফ্রাই

উপকরণ : পনির ১ কাপ, টমেটো কুচি আধা কাপ, আস্ত জিরা ১ চা চামচ, টমেটো সস ১ চা চামচ, চিনি ১ চা চামচ, লবণ পরিমাণমতো, গরম মসলা গুঁড়া ১ চা চামচ, মাখন ১০০ গ্রাম, কাঁচামরিচ ৫-৬টি, কাজু বাদাম ১ চা চামচ করে, পোস্তা বাটা ১ চা চামচ, তেজপাতা ১টি, ধনিয়া পাতা আধা কাপ।

প্রস্তুত প্রণালি : প্রথমে পনিরগুলোকে একটু মাখনে ভেজে নিতে হবে, তারপর তুলে রাখতে হবে। চুলায় অন্য একটি পাত্রে মাখন দিয়ে তেজপাতা ও জিরার ফোড়ন দিয়ে তাতে টমেটো কুচি দিয়ে কসাতে দিন এবং সব মসলা দিয়ে ভালো করে কষান। কষানো হয়ে গেলে এতে পনির দিয়ে নাড়াচাড়া করুন। পনির ভাজা ভাজা হয়ে গেলে তাতে কাঁচা মরিচ, চিনি ও ধনিয়া পাতা দিয়ে নামিয়ে ফেলুন। এভাবে তৈরি করে ফেলুন পনির মসলা ফ্রাই।

পনির মসলা ফ্রাইরেসিপিটি প্রকাশিত হয় ১৪ অক্টোবর ২০১৫
1SAMAKAL=LOGO

 
 
%d bloggers like this: